শীতলক্ষ্যায় গোসল করতে গিয়ে স্কুল ছাত্র নিখোঁজ

শীতলক্ষ্যায় গোসল করতে গিয়ে স্কুল ছাত্র নিখোঁজ

বেঙ্গল রিপোর্ট২৪:
নগরীর টানবাজার এলাকার স্কুল ঘাট সংলগ্ন শীতলক্ষা নদীতে গোসল করতে গিয়ে তোয়াশিন আরাফাত (১০) নামের এক শিশু নিখোঁজ হয়েছে। শিশুটি দেওভোগ পানির ট্যাংকি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেনীর শিক্ষার্থী। বুধবার দুপুর ২ টার থেকে শিশুটিকে খোঁজাখুজি করে তার পরিবার। সে দেওভোগ পশ্চিমপাড়া এলএন রোড (মুরাদ মিয়ার ভাড়াটিয়া) রিতা আক্তারের ছেলে।

প্রতক্ষ্যদর্শীরা জানায়, বুধবার বেলা ১১টার সময় ফয়েজ আহম্মেদ মৃধ (৩০) নামের এক কথিত মামার সাথে নদীতে গোসল করতে গেলে তোয়াসিন নিখোজ হয়। অনেক খোজা খুজি করার পর কথিত মামা ফয়েজ আহম্মেদ মৃধা দুপুর ২টার সময় তোয়াসিন এর মা রিতা আক্তারকে ঘটনাটি জানায়। পরে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সহায়তায় শীতলক্ষা নদীতে শিশুটিকে উদ্ধারের জন্য নারায়ণগঞ্জের ফায়ার সার্ভিসের একটি টিমসহ ঢাকার একটি ডুবুরি দল কাজ করছেন।

স্থানীয়দের দাবী নিহত তোয়াসিন গোসল করতে গিয়ে নিখোঁজ হয় নি। এটা একটা পরিকল্পতি ঘটনা। স্থানীয়তের মদে বেপারীপাড়া (লতিফ মিয়ার বাড়ির ভাড়াটিয়া) ওয়ালে মৃধার ছেলে ফয়েজ আহম্মেদ মৃধা তোয়াসিন এর কথিত মামা। সেই কথিত মামা তোয়াসিনের মা রিতা আক্তারকে মৌখিক ভাবে বোন সংবর্ধনা করে একটি পারিবারিক সম্পর্ক স্থাপন করে। তবে দীর্ঘ দিনের এই সম্পর্কের এক পর্যায়ে ফয়েজ আহম্মেদ রিতাকে বিবাহের পরিকল্পনা করে।

তোয়াশিনের মা জানায়, তিনি সকালে কাজে যায় এবং দুপুরে ফয়েজ (কথিত মামা) তাকে ফোনে জানায় তার ছেলেকে খুজে পাওয়া যাচ্ছে না।তারপর থেকে তিনি তার সন্তানকে বাড়ীর আশেপাশে খোজা খুঁজি করে। একপর্যায় পুলিশকে জানায়। সে ধারণা করছে এটা পরিকল্পিত হত্যা।

দেওভোগ পশ্চিম এলএন রোড এলাকার স্থানীয় এক বাসিন্দা নাম না প্রকাশ করার শর্তে বলেন, তোয়াশিনের বাবা দীর্ঘদিন যাবত তার পরিবার কে ছেড়ে অনত্র থাকে। আর এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে রিতা আক্তার কে সে বিয়ে করার জন্য পায়তারা চালায়। তাকে বিয়ে করার জন্য ফয়েজ আহম্মেদ রিতার কাছা কাছি যাওয়ার জন্য তোয়াসিনকে বিভিন্ন স্থানে ঘুরতে নিয়ে যায়। নিয়মিত তিনি এই কাজ গুলো করে থাকেন। এটা কোন দুর্ঘটনা নয়। এটা একটা পরিকল্পতি ঘটনা। হতেও পারে সে শিশুটিকে হত্যা করেছে!

ফায়ার সার্ভিসের একজন কর্মকর্তা মাজহারুল জানান, সন্ধ্যা ৬টা থেকে নিখোঁজ শিশুটিকে উদ্ধারের জন্য বিভিন্ন তৎপরতা চালিয়ে আসছেন তারা। এক পর্যায়ে ঢাকা থেকে একটি ডুবুরি দল তাদের সাথে উদ্ধার কাজে যোগদান করে।

সংবাদটি শেয়ার করুন




Copyright © 2019 All rights reserved bengalreport24.com
Design BY NewsTheme