৫ ঘন্টার চেষ্টা নিয়ন্ত্রনে শান ফেব্রিক্স এর আগুন

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ের মেঘনাঘাটে অবস্থিত সুতার কারখানা শান ফেব্রিক্সের আগুন সাড়ে পাঁচ ঘণ্টা পর নিয়ন্ত্রণে এসেছে। ফায়ার সার্ভিসের আটটি ইউনিটের ৬৮ জন কর্মী আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করেছে। তবে কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

সোনারগাঁ ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক আবদুল্লাহ আল আরেফিন জানান, মেঘনা শিল্পাঞ্চলের ঝাউচর এলাকায় শান ফেব্রিকস ওই কারখানার ইউনিট ওয়ান ও ইউনিট টু’র বিভিন্ন সেকশন আগুনে পুড়ছে। সোনারগাঁ, আদমজি ইপিজেড, গজারিয়া ও মেঘনা, নারায়ণগঞ্জসহ ফায়ার সার্ভিসের ১০ টি ইউনিট আগুন নেভাতে কাজ করেছে। রাত ১০ টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। কারখানার গুদামে প্রচুর পরিমানে তুলা থাকায় তা নেভাতে অনেক সময় লেগেছে। তাছাড়া গুদামে সুতা ও মেশিনও ছিলো।

আবদুল্লাহ আল আরেফিন জানান, আগুনের সূত্রপাত জানা যায়নি। ক্ষয়ক্ষতি পরিমাণ মালিক পক্ষের সঙ্গে কথা বলে নির্ণয় করা হবে। এখনো পর্যন্ত কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি বলে জানান তিনি।

কারখানার শ্রমিক ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান,শান ফেব্রিক্স থেকে হঠাৎ বিকট শব্দ হয়। কারখানার গুদামের ভেতর থেকে কালো ধোয়া আর আগুন দেখে শ্রমিকরা ছুটাছুটি শুরু করে। পরে শ্রমিকরা আগুন নেভানোর চেষ্টা করে। তবে সেখানে তুলা ও সুতার পরিমান বেশি থাকায় আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। কিছুক্ষণ পর আগুন নেভাতে আসে ফায়ার সার্ভিসরা।

এর আগে বৃহস্পতিবার ৬ টার দিকে সোনারগাঁও মেঘনায় শান ফ্রেবিক্স নামের নিটিং কারখানার গুদামে অগ্নিকান্ড সংগঠিত হয়।

সোনারগাঁ থানার উপপরির্দশক মোহাম্মদ মিজান জানান, শান ফেব্রিক্স ভেতরে এক অংশে তুলা দিয়ে সুতা বানানো হয়। সেখানে কাজ চলছিলো। কারখানর ভেতরে অনেক মেশিন ছিলো। গুদামে তুলা, সুতা ও কাপড় রয়েছে। আজ সন্ধ্যায় হঠাৎ শ্রমিকরা গুদামে আগুন জ্বলতে দেখে চিৎকার শুরু করে। পরে ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয়া হয়। পাশাপাশি পুলিশ এসে জননিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছে। এখনো পর্যন্ত আগুনে কোন হতাহতের খবর পাইনি।