রূপগঞ্জে চায়ের দোকানে নির্বাচনী আমেজ

রূপগঞ্জে চায়ের দোকানে নির্বাচনী আমেজ

বেঙ্গল রিপোর্ট২৪:
চায়ের দোকানগুলোতে নির্বাচনী আমেজ জমে উঠেছে। চা বিক্রেতারা ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। আগামী (১৪ অক্টোবর) রূপগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। তাই নির্বাচনকে ঘিরে এখানকার মানুষের সকালে ঘুম ভাঙলেই যেন এক কাপ চা না খেলে তাদের সারাদিন চলেই না। আর সকাল হলেই উপলব্ধি করা যায় গ্রামীণ মানুষের ছোট ছোট চায়ের দোকানে ভিড় জমানো আড্ডা।

রূপগঞ্জ সদর ইউনিয়ন বা নির্বাচনের হাটবাজারের চায়ের দোকানগুলোতে কী রকম নির্বাচনী আমেজ, আর খেটে খাওয়া মানুষই বা কী চাচ্ছে সংশ্লিষ্ট প্রার্থীদের কাছে। তা জানতে প্রতিবেদক বিভিন্ন চায়ের দোকান ঘুরে খেটে খাওয়া মানুষের সাথে আলাপ আলোচনা, অনেকের সঙ্গে সাক্ষাতে, তাদের সবার একটাই দাবি এলাকায় যেন কোন ধরনের হানাহানি ছাড়া শান্তিপূর্ণ সুষ্ঠ নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

কুদু মার্কেট বাজারের এক চা স্টলে কিছু সময় বসলে শোনা যায়, আগামী নির্বাচন নিয়ে বিভিন্ন কথাবার্তা, কিছু সময় কথাবার্তা শুনে প্রতিবেদকের এক প্রশ্নের উত্তরে একজন বৃদ্ধ জানান, বাবা আগে আমরা ভোট দিয়েছি সে সময় এরকম কোনো হানাহানি মারামারি ছিল না। এখন যেন নির্বাচন আসলেই হানাহানি মারামারি হয়। এ রকম হলে আমি ভোট দিতে যামু না আর যদি কোনো ধরনের ঝামেলা না হয় ভোট দিতে যাইমু।

রূপগঞ্জ থানার পাশের এক চা দোকানদার নির্বাচন নিয়ে বলেন, সামনে আমাদের ইউনিয়ন নির্বাচন তাই মানুষের উপস্থিতি বেশি আর তাই আমার চা বেচাও অনেক বেশি হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, আমি মনে করি এবারের নির্বাচনে কোনো ধরনের হানাহানি মারামারি হবে না। নির্বাচন হবে সুষ্ঠ এবং নিরপেক্ষ।

চায়ের দোকানে কয়েকজন ভোটার বলেন, এবারের নির্বাচন সুষ্ঠ নিরপেক্ষ হবে কোনো ধরনের হানাহানি হবে না। আবার কেউ কেউ মুখ খুলছে না। কয়েকজন নবীন ভোটার বলেন, যখন ছোট ছিলাম তখন বুঝতাম নির্বাচন আসলে কত যে আনন্দ, ঈদে যে রকম খুশিও আনন্দ হয় সে রকম আনন্দ করতাম। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে অনেক রকমের দোকান বসত। তখনতো আর আমরা ভোট দিতে পারতাম না। আমরা তরুণরা এ রকম কোন নির্বাচন চাই না, যে নির্বাচনে নেই কোনো আনন্দ রয়েছে শুধু বেদনা।

সংবাদটি শেয়ার করুন




Copyright © 2019 All rights reserved bengalreport24.com
Design BY NewsTheme