ফারুক ও হুমায়ূন কবীরের নামে অপপ্রচারে নিন্দা অব্যাহত

ফারুক ও হুমায়ূন কবীরের নামে অপপ্রচারে নিন্দা অব্যাহত

আদমজী ইপিজেডের দুই প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী যারা ইপিজেড প্রতিষ্টালগ্ন থেকে ইপিজেডে সুনানের সাথে ব্যবসা করে আসছে, যাদের বিরুদ্ধে চাদাবাজি কিংবা মাদকের কোন অভিযোগ প্রশাসন থেকে শুরু করে সাধারন মানুষের কাছে নেই, যারা সর্বদা মাদকের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে ছিলো, আজও রয়েছে সেই দুই ব্যবসায়ী ফারুক হোসেন ও হুমায়ূন কবীরকে একটি কুচক্রিমহল ক্ষোভের বসবতী হয়ে বিভিন্ন গনমাধ্যমে একবার চাঁদাবাজ একবার মাদক ব্যবসায়ী বানানো অপচেষ্ঠায় ফলে বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের মধ্যে নিন্দা ও ক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে।

গতকাল বিকালেও ফারুক হোসেন ও হুমায়ূন কবীরকে নিয়ে বিভিন্ন গনমাধ্যমে প্রচারিত কুচক্রী মহলের অপপ্রচারের জবাব দিয়েছেন বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। যাদের মধ্যে রয়েছেন নাসিক ১নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর আ’লীগ নেতা আব্দুর রহিম মেম্বার, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারন সম্পাদক আমিনুল হক রাজু, আদমজী আঞ্চলীক শ্রমিকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আজিজ।

এক প্রতিক্রিয়ায় সিদ্ধিরগঞ্জ থানা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারন সম্পাদক আমিনুল হক রাজু বলেন, বিগত দিনে বিএনপি-জামাত চারদলীয় জোট সরকার বিরোধী আন্দোলনে রাজপথে যাদেরকে আন্দোলনে দেখেছি তাদের মধ্যে ফারুক অন্যমত। সে লোকজন নিয়ে ছিলো আ’লীগের বিভিন্ন আন্দোলনে পাশে ছিলো। যখন আ’লীগের র্দুদিন ছিলো, আ’লীগ নেতারা অনেক নির্যাতিত হয়েছেন তখন এই ফারুকের নেতৃত্বে অনেকে রাজপথে থেকে বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করেছে। আদমজী আঞ্চলীক শ্রমিকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আজিজ তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ফারুক ও হুমায়ূন কবীর কেমন ছেলে তা আমাদের থেকে কেহ ভালো জানে না। আমরা তাদেরকে কোন দিন কোন খারাপ কাজে দেখিনি। ফারুক হোসেন একজন ভালো ফুটবল খেলোয়ার ছিলো। আমরা তার খেলা দেখে মুগ্ধ হতাম।

তাছাড়া ফারুক হোসেন ও হুমায়ূন কবীর দীর্ঘদিন যাবত আদমজী ইপিজেডে ব্যবসা করে আসছে। পাশাপাশি আ’লীগের যেকোন রাজনৈতিক কর্মসূচীতে তাদের অংশগ্রহন এখনো প্রশংসনীয়। পূর্বেও তারা আ’লীগের বিভিন্ন কর্মসূচী প্রচুর লোকজন নিয়ে সফল করেছে। তারা সর্বদা দলের নিবেদিত প্রান হিসাবে আমরা জানি। বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর তারা আদমজী ইপিজেড এলাকায় ব্যবসার সাথে জড়িয়ে পড়লেও তাদের রাজনৈতিক কর্মকান্ড এখনো সুনাম সাথে পালন করছে। তারা ব্যবসা করে বর্তমানে ভালো অবস্থানে থাকায় তাদের জনপ্রিয়তায় ইশ্বান্বিত হয়ে স্থানীয় একটি মহল তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন গনমাধ্যমে মিথ্যে তথ্য দিয়ে অপপ্রচার চালায়। আমি এই সকল অপপ্রচারের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

নাসিক ১নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর আব্দুর রহিম মেম্বার তার প্রতিক্রিয়ায় জানান, ফারুক ও হুমায়ূন কবীর আদমজী ইপিজেড এলাকায় ব্যবসা করার কারনে আমাদের এলাকার অনেক বেকার যুবকের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা হয়েছে। এলাকা থেকে প্রায় ৪ থেকে ৫’শ লোক আজ আদমজী ইপিজেড এলাকায় কাজ করে তারা তাদের জীবিকা নির্বাহ করছে। শুধু তাই নয়, এলাকায় সকল ধরনের সামাজিক কাজে আমরা তাদেরকে পাশে পাই। সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বিশুদ্ধ পানির ব্যবস্থা করে অনেকের দোয়া নিয়েছে ব্যবসায়ী হুমায়ূন কবীর। তারা কেহ বিপদে পড়লে সাহায্যের হাত বাড়ায় বলে এলাকায় তাদের অনেক সুনাম রয়েছে। এই ধরনের ভালো ছেলেদের বিরুদ্ধে মিথ্যে অপপ্রচারে আমরা হতবাক বিস্মীত হয়েছি। যারা কোন দিন চাদাবাজি কিংবা মাদকের সাথে জড়িত নয়। এই ধরনের খারাপ কাজে আমি যাদেরকে কোন দিন দেখিনি তাদের নিয়ে মিথ্যে অপপ্রচার আমাদেরকে দু:খ দিয়েছে। আমরা এই ধরনের অপপ্রচারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

উল্লেখ্য, বিভিন্ন গনমাধ্যমে ফারুক হোসেন ও হুমায়ূন কবীরকে নিয়ে প্রকাশিত অপপ্রচার সত্য নাকি উদ্দেশ্য প্রনোদিত তা যাচাই করার জন্য গত ২দিন ধরে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা এলাকার বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতা ও শ্রেনী পেশা মানুষের সাথে কথা হয়। তাদের কথা থেকে প্রমানিত হয় যে, ফারুক হোসেন ও হুমায়ূন কবীর মিথ্যে অপপ্রচারের শিকার। একটি মহল তাদেরকে সমাজে হেয় প্রতিপন্য করার জন্য এবং প্রশাসনের কাছে কালার করার জন্য উঠে পড়ে লেগেছেন। কোন ধরনের অবৈধ কাজ যেমন চিটাংরোড় এলাকায় চাদাবাজি, মাদকের সাথে সম্পৃক্ত, পরিবহন ব্যবসা, সন্ত্রাসী কিংবা অন্যকোন অপরাধের সাথে তারা কোনদিন কোনভাবে জড়িত নয়। আদমজী ইপজেডে সুনামের সাথে ব্যবসা করার করনে ইপিজেড এর ভিতরের কোন ব্যবসায়ী, কিংবা ভেপজাতেও তাদের নামে কোন ধরনের কমপ্লেন নেই।

আজ এই সুনামধন্য সর্বজন আদরের দুই ব্যক্তি ফারুক হোসেন ও হুমায়ূন কবীরকে চাদাবাজ ও মাদক ব্যবসায়ী বানানের অপচেষ্টা করছে একটি কুচক্রী মহল। তাদের বিরুদ্ধে যে অপপ্রচার হচ্ছে তা যে মিথ্যে বানোয়াট গত দুই সিদ্ধিরগঞ্জ এলাকায় বিভিন্ন মানুষের সাথে কথা বলে তাই প্রমানিত হয়েছে। বিভিন্ন মহল তারপরও প্রশাসনের নিকট সতত্য যাচাইয়ে সুষ্টু তদন্ত দাবী করেছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন




Copyright © 2019 All rights reserved bengalreport24.com
Design BY NewsTheme