ধলেশ্বরী থেকে ২ বাল্কহেডসহ ৪ জন গ্রেপ্তার

ফতুল্লার ধলেশ্বরী নদীতে বেপরোয়া ও দ্রুত গতিতে বাল্কহেড চালানোর অভিযোগে দু’টি বাল্কহেডসহ চার জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। রোববার দিবাগত রাতে ধলেশ্বরী নদীর ধর্মগঞ্জ খেয়াঘাট এলাকায় বক্তাবলী নৌ পুলিশ ফাঁড়ীর সদস্যরা বিশেষ অভিযান চালিয়ে এম.ভি ইশরাত-নুশরাত ও এম.ভি নূরে রওয়াজা নামের বালুবাহী দু’টি বাল্কহেড জব্দ করাসহ সুকানি মো. খলিলুর রহমান, মো. আল আমিন, সুকানি মো. রুবেল ও মো. আবআস আলীকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এ ঘটনায় বক্তাবলী নৌ পুলিশ ফাঁড়ীর সহকারী উপ পরিদর্শক (এএসআই) মো. আব্দুর রহিম বাদী হেয় ফতুল্লা মডেল থানায় পৃথক দু’টি মামলা দায়ের করেছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রকিবুজ্জামান। তিনি জানান, ধলেশ্বরী নদীতে বেপরোয়া ও দ্রুত গতিতে বালুবাহী বাল্কহেড পরিচালনার অভিযোগ এনে পৃথক দু’টি মামলা করা হয়েছে। সেই সাথে জব্দ করা হয়েছে দুটি বাল্কহেড। গ্রেপ্তারকৃতদের আদালতে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন বরিশাল বাবুগঞ্জ দেহেরগতি গ্রামের মৃত মোক্তার আলীর ছেলে মো. খলিলুর রহমান, একই গ্রামের মো. জাহাঙ্গীর হাওলাদারের ছেলে মো. আল আমিন, ভোলা তজিমউদ্দিন চাচড়া গ্রামের মৃত সালাহউদ্দিন মাঝির ছেলে মো. রুবেল ও ভোলা লালমোহন নবীনগর গ্রামের মো. নুরনবীর ছেলে মো. আব্বাস আলী।

মামলায় বলা হয়, রোববার দিবাগত রাতে বক্তাবলী নৌ পুলিশ ফাঁড়ীর সদস্যরা নৌ পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স ঢাকা এর সহকারী পুলিশ সুপার মো. শিবলী কায়সারের নেতৃত্বে ধলেশ্বরী নদীতে বিশেষ অভিযান টহল ডিডউটি পরিচালনা করছিলেন। মুন্সিগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা দু’টি বালুবাহী বাল্কহেডকে সিগন্যাল দিলে বাল্কহেড দু’টি আশংকাজনক বেপরোয়া ও দ্রুত গিতে চালাতে থাকে। পরে ধাওয়া করে ধর্মগঞ্জ খেয়াঘাটের সামনে থেকে বাল্কহেড দু’টির গতিরোধ করে সেটির পরিচালনায় যুক্ত ৪ জনকে গ্রেপ্তার করাসহ বাল্কহেড দু’টি জব্দ করা হয়।