দূর্নীতিমুক্ত এমপিদের তালিকা করা হলে আমার নাম সবার শীর্ষে থাকবে: এমপি খোকা

দূর্নীতিমুক্ত এমপিদের তালিকা করা হলে আমার নাম সবার শীর্ষে থাকবে: এমপি খোকা

গণসংযোগ ও উঠান বৈঠকে সংসদ সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকা বলেন, এমপি হওয়ার পরেও আমি আমার ২টি জমি ও ১টি ফ্লাট বিক্রি করে সোনারগাঁয়ের মানুষের কল্যাণে ব্যয় করেছি। এজন্য মাঝে মধ্যে বন্ধু মহলের কাছে আমাকে কথা শুনতে হয়। তারা বলে অন্য এমপিরা যেখানে গাড়ি-বাড়ি করে, সেখানে তুমি সম্পদ বিক্রি করে মানুষের পিছনে ব্যয় করো। এর উত্তরে আমি বলি, সোনারগাঁয়ের মানুষ আমাকে ভালোবাসে।

বেঙ্গল রিপোর্ট, সোনারগাঁঃ
আসন্ন সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নারায়ণগঞ্জ-৩ (সোনারগাঁ) আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় পার্টির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব লিয়াকত হোসেন খোকা ৯ অক্টোবর (মঙ্গলবার) সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত সোনারগাঁ পৌরসভার বাগমুছা, খাগুটিয়া, বাড়িগন্ধব, ফতেকান্দী ও পিরোজপুর ইউনিয়নের ভাটিবন্দর জিয়ানগর এলাকায় লাঙ্গলের পক্ষে ব্যাপক গণসংযোগ, উঠান বৈঠক ও এলাকাবাসীর সঙ্গে মতবিনিময় করেন। এসময় শতশত নারী পুরুষ তাদেরকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।

এদিকে সন্ধ্যায় ভাটিবন্দর জিয়ানগর এলাকায় উঠান বৈঠক শেষে জনৈক বৃদ্ধা এমপি খোকা ও তার স্ত্রী ডালিয়াকে মুলকা খাওয়াবেন বলে হাতে ধরে নিজ বাড়িতে নিয়ে যান। এসময় এমপি খোকা ওই বৃদ্ধাকে মা বলে সম্মোধন করেন এবং নিজে রান্না ঘরে গিয়ে নিজ হাতে মুলকা বানিয়ে তাকে সহায়তা করেন।

উঠান বৈঠক ও মতবিনিময় সভায় এমপি লিয়াকত হোসেন খোকা বলেন, আমি প্রায় ৫ বছর ধরে সোনারগাঁয়ের মানুষকে শান্তিতে রাখার চেষ্টা করেছি। ক্ষমতার অপব্যবহার করে কারো উপর জুলুম করিনি। সরকারি সম্পদ আত্মসাত করিনি। মিথ্যা মামলা-হামলার মাধ্যমে কাউকে হয়রানী করিনি। বরং যতটুকু পেরেছি মানুষের উপকার করার চেষ্টা করেছি।

তিনি বলেন, প্রায়ই রাত ২/৩টা পর্যন্ত আমাকে সোনারগাঁয়ের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রজেক্ট নিয়ে কাজ করতে হয়। এমপি হওয়ার পরেও আমি আমার ২টি জমি ও ১টি ফ্লাট বিক্রি করে সোনারগাঁয়ের মানুষের কল্যাণে ব্যয় করেছি। এজন্য মাঝে মধ্যে বন্ধু মহলের কাছে আমাকে কথা শুনতে হয়। তারা বলে অন্য এমপিরা যেখানে গাড়ি-বাড়ি করে, সেখানে তুমি সম্পদ বিক্রি করে মানুষের পিছনে ব্যয় করো। এর উত্তরে আমি বলি, সোনারগাঁয়ের মানুষ আমাকে ভালোবাসে। আমার জন্য তাহাজ্জুদের নামাজ পড়ে দোয়া করে। পথে ঘাটে রিক্সাওয়ালা-দিন মজুররা আমাকে দেখলে মুসাফা করতে ছুটে আসে। স্কুল-কলেজের ছাত্রছাত্রীরা আমাকে দেখলেই মামা মামা বলে ডাকে। এর চেয়ে বেশি পাওয়া আর কিছুই হতে পারে না।

তিনি বলেন, আমার প্রতি মানুষের এই ভালোবাসার কারণ হলো, আমি ৫ বছরে এমন কোন কাজ করিনি যাতে মানুষ আমাকে গালি দিতে পারে। যদি সারাদেশে দূর্নীতিমুক্ত এমপিদের তালিকা করা হয় তাহলে লিয়াকত হোসেন খোকার নাম সবার শীর্ষে থাকবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- সোনারগাঁ উপজেলা জাতীয় মহিলা পার্টির নেত্রী জাহানারা আক্তার, মাহমুদা ইসলাম ফেন্সী, পৌরসভার কাউন্সিলর জাহেদা আক্তার মনি, বারদী ইউপির প্যানেল চেয়ারম্যান দাইয়ান সরকার, মোহাম্মদ আলী, পৌরসভা জাতীয় পার্টির সভাপতি হাজী পিয়ার আলী, সাধারণ সম্পাদক লিংকন সিকদার, মোতালিব মিয়া স্বপন, শাহীন, পৌর কাউন্সিলর শাহজালাল, উপজেলা ছাত্র সমাজের সভাপতি ফজলুল হক, সাধারণ সম্পাদক সেকান্দার আলী প্রমুখ।

সংবাদটি শেয়ার করুন




Copyright © 2019 All rights reserved bengalreport24.com
Design BY NewsTheme