ওসির সামনে হুমকি

বেঙ্গল রিপোর্ট২৪
ফতুল্লা মডেল থানায় ডাইং দখলের অভিযোগ করার পর আমাদের দুইপক্ষকে মিমাংসা করার ডাকা হয়। তখন ওসির সামনে তারা আমাদের হুমকি প্রদান করে। পরবর্তীতে আমরা থানায় না গিয়ে জেলা প্রাশক ও পুলিশ সুপারের কাছে অভিযোগে দায়ের করি। রবিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন ভাড়াটে শাহনাজ পারভীনের ভাই সুলতান মাহমুদ।

তিনি আরও বলেন, আমরা বোন শাহনাজ পারভীনের সাথে এস বি নিট কম্পোজিটের ডাইংকের চুক্তি নামা করে ভাড়া দিয়েছে মতৃ. মজিবর রহমান সোহেল। ভাড়ার মের্য়াদ ৫ বছর ছিলো কিন্তু তারা আমাদের কোন প্রকার নোটিশ না দিয়ে জাহেদুর ইসলাম জনি নেতৃতে ডাইংক দখল করেছে। ওই কারখানার জন্য আমাদের খরচ হয়েছে মোট দুই কোটি ২৫ লাখ ৬৯ হাজার ১শ ৯২ টাকা। মৃত. সোহের অগ্রিম জামানত বাবদ আমাদের কাছ থেকে দেড় কোটি টাকা নিয়েছে। তারা আমাদের কাছে শুধু মাত্র তিন মাসের ভাড়া ৭ লাখ করে মোট ২১ লাখ টাকা পাবে। আমরা মজিবর রহমান সোহেল কে বিশ্বাস করেছি। তার কথা মতোই চুক্তি করেছি। কিন্তু এখন তার স্ত্রী আমাদের বলছে চুক্তি নামা হয় নাই। তাহলে কি সোহেল আমাদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে আমাদের সাথে প্রতারনা করেছে।

সংবাদ বিজ্ঞতিতে আরও উল্লেখ করা হয়, এস বি নিট কম্পোজিটের পূর্বের বকেয়া গ্যাস, বিদ্যুৎ ও পানির পাম্প বিল পরিশোধ করেন তারা। নতুন মেশিনপত্র বসিয়ে ডাইং চালু করা হলে আ.মতিনের ছেলে মাইবুবুর রহমান (মামুন), হাজী তৈয়ব আলীর ছেলে জাহেদুর ইসলাম (জনি) ও আ. রশিদের ছেলে মাসুমসহ ১০ থেকে ১৫ জনের সংঘবদ্ধ ভাবে এসে গেটের দারোয়ানকে মারধর ডাইংটি দখল করে নেয়। এ বিষয়ে ফতুল্লা থানায় অভিযোগ করি। পরে ওসি সাহেব দুই পক্ষকে মিমাংসা করার জন্য ঢাকলে তারা ওসির সামনে আমাদের হুমকি দেয় বলে সংবাদ বিজ্ঞতিতে বলা হয়েছে।

FacebookTwitterInstagramPinterestLinkedInGoogle+YoutubeRedditDribbbleBehanceGithubCodePenEmail