ছোট মেয়ে কোচিংয়ে যেতে পারছে না

ছোট মেয়ে কোচিংয়ে যেতে পারছে না

বেঙ্গল রিপোর্ট২৪:
নারায়ণগঞ্জ র‌্যালীবাগানে সন্ত্রাসীদের হামলায় নিহত আরজু বেগমের পরিবারকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছে হত্যাকারীরা। সেই হুমকি ও বাদী’র পরিবারকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে আরজু বেগমের পরিবারসহ তার আত্মীয়-স্বজনরা। গতকাল বেলা ১১টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়।

নিহতের পরিবারের দাবি, আসামী লিজা এডভোকেট হওয়াতে তাদের আরজুর হত্যা বাদির পক্ষে কোন আইনজীবি মামলা নিতে রাজি হচ্ছে না। বিবাদীরা তাদেরকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে। বিভিন্ন সময় তাদেরকে বিভিন্ন মহল থেকে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে। তাদের ভয়ভীতিতে আরজু বেগমের ছোট মেয়ে লামিয়া কোচিংয়ে যেতে পারছে না। নিহতের বোড় বোনের ছেলে মো. সাদ্দাম এই মামলার বাদি হওয়াতে তাকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে।

তারা বলেন, কোন আইনে আছে উকিলদের বিচার হয়না ? এটা কেমন আইন, কেমন গণতন্ত্র ? তাহলে আমরা সাধারণ মানুষরা কোথায় যাবো। নারায়ণগঞ্জ জজ কোর্টে কমপক্ষে ১২’শ উকিল আছে। অথচ, উকিলের বিপক্ষে মামলা হওয়ায় আমরা একজন আইনজীবিও আমাদের পক্ষে পাচ্ছি না। আমাদের গোটা পরিবার আজকে অসহায় হয়ে পড়েছে। আমরা কী তাহলে সুষ্ঠ বিচার পাবো না। বাংলাদেশে যদি সেনাবাহিনী, বিডিআর, পুলিশ, এমপি, মন্ত্রী ও সাবেক প্রধানমন্ত্রীর বিচার হতে পারে তাহলে সামান্য উকিলের কেনো বিচার হবে না। সাংবাদিকদের মাধ্যমে আমরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে সহযোগিতা চাই। আমাদের গোটা পরিবার আইনজীবিদের কাছে জিম্মি। আর কোন আরজু বেগমকে যেনো মাদকের স্লোগান দিতে গিয়ে উকিলের হাতে মৃত্যুবরণ করতে না হয়।

প্রসঙ্গত, গত ৩০ মার্চ শহরের র‌্যালীবাগানে মাদকের প্রতিবাদ করায় ৫ সন্তানের জননী আরজু বেগমকে (৪০) মারধর ও বৈদ্যুতিক শক দিয়ে হত্যা করা হয়। নিহত আরজু বেগমের বড় বোনের ছেলে মো. সাদ্দাম হোসেন বাদী হয়ে সদর মডেল থানায় ১২ জনের নাম উল্লেখসহ ২০ জনের নামে মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনার প্রেক্ষিতে এড. হামিদা খাতুল লিজা, আসমা আক্তার, রমজান, পপি, হাসিনা, সাহের বানু, সোনিয়া আক্তার, শফিকুর রহমান ও সাহাবুদ্দিনকে আটক করে পুলিশ। পরবর্তীতে তারা ছাড়া পেয়ে যায়।

সংবাদটি শেয়ার করুন




Copyright © 2019 All rights reserved bengalreport24.com
Design BY NewsTheme