সোনারগাঁয়ে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ

rape-logo

বেঙ্গল রিপোর্ট২৪
নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে তৃতীয় শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রীকে জঙ্গলে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

৭ জানুয়ারী (মঙ্গলবার) বিকেলে জামপুর ইউনিয়নের বশিরগাঁও গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকে ধর্ষক সিয়াম পলাতক রয়েছে। ঘটনার পর ওই ছাত্রীর বাবা মা গ্রাম্য শালিসকারীদের কাছে অভিযোগ দিলে থানায় মামলা করতে বাঁধা প্রদানের অভিযোগ উঠেছে তাদের বিরুদ্ধে।

জানা যায়, উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের বশিরগাঁও গ্রামের বাসিন্দা ও মালিপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রীকে মঙ্গলবার বিকেলে সিয়াম নামের এক বখাটে ডেকে জঙ্গলে নিয়ে যায়। এক পর্যায়ে ওই ছাত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এসময় ধর্ষণকারী সিয়াম ওই ছাত্রীকে কাউকে না বলতে হুমকি দেয়। পরে ওই ছাত্রী বিষয়টি তার বাবা মাকে খুলে বললে তার বাবা মা গ্রাম্য সালিশকারী নুরুল ইসলাম ও খবরউদ্দিনের কাছে বিচার দাবি করে। শালিশকারী খবরউদ্দিন ও নুরুল ইসলাম ওই মেয়েকে বিয়ে দেওয়ার সময় যাবতীয় খরচ বহন করার প্রলোভন দেখায়। এ বিষয়টি মেনে না নিয়ে সোনারগাঁ থানায় যেতে চাইলে তাদের বাধা প্রদান করার অভিযোগ উঠে তাদের বিরুদ্ধে।

ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রীর মা অভিযোগ করে বলেন, সিয়াম তার নানার বাড়িতে বসবাস করে। তার মেয়েকে মঙ্গলবার বিকেলে ৪টার দিকে বাড়ি থেকে ডেকে জঙ্গলে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। তার মেয়ে বর্তমানে অসুস্থ্য অবস্থায় আছে। গ্রাম্য সালিসকারী নুরুল ইসলাম ও খবরউদ্দিনের কাছে বিচার দাবী করলে বিয়ের সময় খরচ বহন করার কথা বলে থানায় যেতে বাঁধা দেয়।

শালিসকারী নুরুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ধর্ষণের ঘটনায় বিচার নিয়ে আমার এসেছিল। আমি তাদের সঠিক বিচার পাইয়ে দেওয়ার কথা বলেছি। তবে থানায় যেতে বাঁধা দেওয়ার বিষয়টি সত্য নয়।

সোনারগাঁ থানার ওসি মনিরুজ্জামান বলেন, ধর্ষণের ঘটনাটি আমার জানা নেই। কেউ অভিযোগ নিয়ে আসেনি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

FacebookTwitterInstagramPinterestLinkedInGoogle+YoutubeRedditDribbbleBehanceGithubCodePenEmail